এবার মমতাকে ‘পুতনা রাক্ষুসী’ বলে কটাক্ষ

25

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মহাভারত অনুযায়ী, তাদের দেবতা কৃষ্ণকে শিশু অবস্থায় হত্যা করার জন্য রাক্ষসী পুতনাকে পাঠানো হয়েছিল। এবার সেই রাক্ষুসীর সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তুলনা করলেন এক কেন্দ্রীয় নেতা।
গতকাল শুক্রবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গিরিরাজ সিংহ বললেন, ‘ঝাঁসির রানি লক্ষ্মীবাই-এর সঙ্গে মমতার তুলনা করা মানে তাতে ঝাঁসির রানির অপমান। মমতাকে বরং ‘পুতনা রাক্ষসী’ অথবা উত্তর কোরিয়ার একনায়ক শাসক কিম জং উনের সঙ্গে তুলনা করা যায়।’
‘পুতনা রাক্ষসী’ দুধে বিষ মিশিয়ে তা কৃষ্ণকে খাইয়ে মেরে ফেলতে চেয়েছিল। অন্যদিকে একনায়কতন্ত্র দেশে চালানোর জন্য পুরো বিশ্বেই তীব্র সমালোচিত কিম জং উন। কয়েক বছর আগে উত্তর কোরিয়ার এই শাসক পাঁচজন অতি গুরুত্বপূর্ণ নিরাপত্তা অফিসারকে অ্যান্টি-এয়ারক্রাফট বন্দুক দিয়ে গুলি করে মেরে ফেলেছিলেন, কেবল তাদের পেশ করা রিপোর্টটি তাকে তেমন খুশি করতে পারেনি বলে।
এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাকে ধ্বংস করছেন মমতা এমন মন্তব্য করেন গিরিরাজ সিংহ। তিনি বলেন, ‘তার বিরোধিতা করলেই যিনি মেরে ফেলেন এবং বাংলাদেশিদের আমন্ত্রণ করে ঘরে ডেকে আনেন তাকে আর যা-ই হোক, ঝাঁসির রানি লক্ষ্মীবাই বা পদ্মাবতীর সঙ্গে কিছুতেই একাসনে বসানো যায় না। তারা তো দেশকে বাঁচানোর জন্য লড়াই করেছিলেন। মমতা তো দেশকে ধ্বংস করার চেষ্টায় মত্ত।’
কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের দাবির কাছে মাথা নোয়াবে না তৃণমূল, এই নিয়ে গতকালই সতর্ক করে দিয়ে তৃণমূল নেতা দীনেশ ত্রিবেদী। তিনি বলেন, ‘বাংলাতেও ঝাঁসির রানি রয়েছেন। তার নাম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই মানুষটা কোনোদিন কেন্দ্রের কাছে মাথা নোয়াবেন না।’
দীনেশ ত্রিবেদীর এই মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতেই শুক্রবার এই মন্তব্য করেন গিরিরাজ সিংহ।