‘কোনো মুসলিম বোন বিজেপিকে ভোট দেবেন না’

28

লোকসভা নির্বাচনে মুসলিম নারীরা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দল ভারতীয় জনতা পার্টিকে (বিজেপি) ভোট দেবেন না। এমনই এক মন্তব্য করে বসলেন কংগ্রেসের রাজ্যসভার সাংসদ প্রদীপ ভট্টাচার্য৷ গতকাল শুক্রবার তিন তালাক ইস্যুতে মোদির সমালোচনা প্রদীপ বলেন, ‘তিন তালাক নিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে নরেন্দ্র মোদির সরকার৷সবাই এটা বুঝতে পারছেন৷ কোনো মুসলিম মা-বোন বিজেপিকে ভোট দেবেন না।’
একইদিন বাংলার চা-বলয়ে দাঁড়িয়ে তিন তালাক ইস্যুতে কংগ্রেসের তীব্র সমালোচনা করেন প্রধানমন্ত্রী৷ মোদি বলেন, ‘মুসলিম মা-বোনদের স্বার্থে আমরা এই আইন এনেছি৷ কিন্তু কংগ্রেস বিরোধীতা করছে৷ ওরা তোষামোদের রাজনীতি করছে।’
উল্লেখ্য, লোকসভায় তিন তালাক বিল পাশ হলেও রাজ্যসভায় আটকে গেছে বিল৷
কয়েকদিন আগেই কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী জানান, কংগ্রেস ক্ষমতায় এলে মোদি সরকারের প্রস্তাবিত তিন তালাক বিল বাতিল করবেন৷ তিনি বলেন, ‘দেশের প্রতিটি মানুষ এই দেশের মালিক। এই দেশ গঠনে দেশের প্রত্যেক সংখ্যালঘুর অবদান রয়েছে। ভারতে প্রতিটি ধর্মের মানুষ এই দেশ তৈরি করেছে। এখন বিভিন্ন আদর্শের মধ্যে সংঘাত হচ্ছে এই সরকারের আমলে।’
কংগ্রেসের মতে, এই বিল আইনে পরিণত হলে পুলিশের হাতে হেনস্থা হতে হবে মুসলিম পুরুষদের৷ তাদের আপত্তির মূলে তিন তালাককে জামিন অযোগ্য অপরাধ ও এতে তিন বছরের সাজাসহ জরিমানার বিষয়টিকে নিয়ে৷ তা ছাড়া স্বামীর জেল হলে স্ত্রীর ভরণপোষণের বিষয়টিও বিলে পরিস্কার নয় দাবি বিরোধীদের৷ সেজন্য তারা বিলটিকে সিলেক্ট কমিটির কাছে পাঠানোর দাবি জানিয়েছে৷
আপাতত ভোট ব্যাংক মাথায় রেখে এই বিল নিয়ে দেশের শাসক ও বিরোধীদের মধ্যে লড়াই জমে উঠেছে।