খালেদা-তারেকের অপকর্মের গণশুনানি দরকার : নৌ প্রতিমন্ত্রী

17

বিএনপির কারাবন্দী চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও বিএনপির অপকর্মের গণশুনানি দরকার বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও নৌ প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

আজ শনিবার দুপুরে এক সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন। এ সময় দিনাজপুরের বিরলে প্রায় সোয়া দুই কোটি টাকা ব্যয়ে চারতলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমপ্লেক্স ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করে তিনি।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, নিজেদের অপকর্ম ঢাকতে বিএনপি একাদশ সংসদ নির্বাচন নিয়ে গণশুনানির নামে এক তামাশা মঞ্চস্থ করেছে। এই গণশুনানির আগে বিএনপির অপকর্মের গণশুনানি করতে হবে।

বিএনপির উদ্দেশে নৌ প্রতিমমন্ত্রী বলেন, আগুন সন্ত্রাস সৃষ্টি করে ১৫০ জন মানুষকে হত্যা করেছেন, আপনাদের লজ্জা লাগে না। এখনো সেই আগুনে পুড়িয়ে মানুষ হত্যার জন্য আপনারা ক্ষমা চান নাই। যারা নিজেরা আগুন দিয়ে মানুষ হত্যা করে, তাদের মুখে চকবাজারে নিহতদের জন্য সহানুভূতি মানায় না।

খালিদ মাহমুদ আরও বলেন, কখনো ২০ দল, কখনো ঐক্য ফ্রন্ট, কখনো ঐক্য প্রক্রিয়া নামকরণ করে একের পর এক ফন্দি আটছেন বিএনপি, তাতে কোনো লাভ হবে না। বাংলার মানুষ বিএনপির অতীত কর্মকাণ্ডের সঠিক জবাব ভোটের মধ্যমে দিয়েছে।

ঐক্যফ্রন্টের গণশুনানি প্রসঙ্গে খালিদ বলেন, আপনাদের জয়নুল আবেদীন ফারুক কী বলেছেন? তা আজকের গণমাধ্যমে এসেছে! আওয়ামী লীগের কৌশলের কাছে এবারের নির্বাচনে মনোনয়ন বাণিজ্য করায় বিএনপি হেরে গেছে। এহছানুল হক মিলনকে বাদ দিয়ে বিদেশের এক ব্যবসায়ীকে মনোনয়ন দেওয়ার ঘটনায় বিএনপি নেতা ফখরুলের ওপর তাদের নেতাদের হামলাই তা প্রমাণ করে। আপনারা নিজেদের অপকর্ম ও বাণিজ্যের বিষয়ে গণশুনানি করেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ বি এম রওশন কবীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এম আবদুল লতিফ, সাধারণ সম্পাদক এ কে এম মোস্তাফিজুর রহমান বাবু, সহসভাপতি ও পৌর মেয়র সবুজার সিদ্দিক সাগর, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মো. আবুল কাশেম অরু, সাবেক ডেপুটি কমান্ডার রহমান আলী, এলজিইডি’র সিনিয়র সহকারী প্রকৌশলী রেজাউল করিম প্রমুখ।