চুক্তি ছাড়াই বার্সেলোনা ছাড়তে পারবেন মেসি

0
222
চুক্তি ছাড়াই বার্সেলোনা ছাড়তে পারবেন মেসি
চুক্তি ছাড়াই বার্সেলোনা ছাড়তে পারবেন মেসি

নিজের স্বার্থটা বেশ ভালোই বোঝেন লিওনেল মেসি! ভবিষ্যতে যাতে কোনো অনিশ্চয়তার মুখোমুখি না হতে হয়, সে জন্য বেরিয়ে যাওয়ার দরজাটা আগে থেকেই খোলা রেখেছেন।

স্পেন থেকে কাতালুনিয়া সত্যিই যদি স্বাধীন হয়, এবং সে জন্য যদি বার্সেলোনা লা লিগাসহ ইউরোপের শীর্ষ কোন লিগে খেলতে না পারে, তাহলেও মেসিকে কোনো সমস্যায় পড়তে হবে। সেক্ষেত্রে ফ্রি চুক্তিতেই বার্সেলোনা ছেড়ে পাড়ি জমাতে পারবেন অন্য কোথাও। চুক্তির দোয়াই দিয়েও বার্সেলোনা তাকে আটকে রাখতে পারবে না!

কারণ, ভবিষ্যতের সেই দরজাটা আগে থেকেই খোলাসা করে নিয়েছেন বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। অনেক গড়িমসি আর দেন-দরবারের পর গত মাসে বার্সেলোনার সঙ্গে নতুন করে চুক্তি নবায়ন করেছেন মেসি। নতুন চুক্তি অনুযায়ী মেসি ২০২২ সাল পর্যন্ত হয়ে গেছেন বার্সেলোনার।

খবরটি তাই বার্সেলোনার সমর্থকদের জন্য ছিল আনন্দের। তবে সমর্থকদের সেই আনন্দের মাঝে ছোট্ট এই শর্তটাও যোগ করে নিয়েছেন মেসি। যা এতোদিন অপ্রকাশিতই ছিল।

নতুন চুক্তি অনুযায়ী মেসিকে বিশ্বের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়া ফুটবলার বানানো হয়েছে। ৫ বারের ব্যালন ডি’অর জয়ী’র বার্ষিক বেতন এখন ৫০ মিলিয়ন ইউরো! বিশাল অঙ্কের এই বেতন দেওয়ার উল্টো পিঠে বার্সেলোনাও অবশ্য নিজেদের একটা স্বার্থ হাসিল করেছে চুক্তিতে।

মেসির বাই আউট ক্লজ বা রিলিজ ক্লজ বাড়িয়ে করেছে আকাশচুম্বী। ৭০০ মিলিয়ন ইউরো মাত্র! কোন ক্লাব যাতে দলের সেরা খেলোয়াড়টিকে ভাগিয়ে না নিতে পারে, ৭০০ মিলিয়ন ইউরোর রিলিজ ক্লজ ঝুলিয়ে দিয়ে সেই পথটাই বন্ধ করে দিয়েছে বার্সেলোনা।

তবে ক্লাব এক দরজা বন্ধ করে দিলেও মেসি খোলাসা করে নিয়েছেন আরেক দরজা। স্বাধীনতার দাবিতে কাতালুনিয়া সোচ্চার। কিছুদিন আগে স্পেনের কেন্দ্রীয় সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে স্বাধীনতার ঘোষণাও দেয় কাতালুনিয়ার নেতারা।

জবাবে কেন্দ্রীয় সরকার কাতালুনিয়ার স্বায়ত্তশাসন তুলে নিয়ে কেন্দ্রীয় শাসন জারি করেছে বটে; তবে কাতালুনিয়ানরা স্বাধীনতার পক্ষেই সোচ্চার। আর কাতালুনিয়ার ক্লাব হিসেবে বার্সেলোনার অবস্থানও স্বাধীনতার পক্ষেই।

তাই শেষ পর্যন্ত কাতালুনিয়া যদি স্বাধীন হয়েই যায়, সেক্ষেত্রে বার্সেলোনা স্প্যানিশ লা লিগায় খেলতে পারবে না। নাম লেখাতে হবে ইউরোপের অন্যকোন দেশের লিগে। ইংলিশ লিগ, ফ্রেঞ্চ লিগ, ইতালিয়ান সিরি ‘আ’, জার্মান বুন্দেসলিগা-অনেক অপশনই অবশ্য থাকবে বার্সেলোনার সামনে। কিন্তু কোনো জটিলতায় যদি বিদেশি লিগেও ঢুকতে না পারে বার্সেলোনা, তখন?

বার্সেলোনার অন্য কোনো খেলোয়াড় ভবিষ্যতের জন্য দরজাটা খোলাসা করে নিয়েছেন কিনা জানা যায়নি। তবে চতুর মেসি পথটা উন্মুক্ত করে নিয়েছেন। সে রকম কিছু হলে ফ্রি খেলোয়াড় হিসেবেই পাড়ি জমাতে পারবেন যেখানে ইচ্ছা। বার্সেলোনার ঝুলিয়ে রাখা ৭০০ মিলিয়ন ইউরোর রিলিজ ক্লজও বাঁধা হয়ে দাঁড়াতে পারবে না।

শুধু মাঠের খেলায় নয়, নিজের ক্যারিয়ার প্রশ্নে মেসির চুক্তি-প্রতিভাও ঈর্ষনীয়!

LEAVE A REPLY