মেসির মতোই ব্যর্থ নেইমার, হতাশার ড্র ব্রাজিলের

0
71
‘বি’ গ্রুপে পর্তুগাল-স্পেন ম্যাচ ড্র’য়ে নিস্পত্তি হওয়া অস্বাভাবিক কিছু নয়৷ ইউরো চ্যাম্পিয়ন পর্তুগীজদের একাই টেনে নিয়ে গিয়েছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো৷ সেখানে ২০১০ বিশ্বচ্যাম্পিয়ন স্প্যানিশ দল সেয়ানে সেয়ানে লড়াই চালিয়ে গ্রুপের সব থেকে কঠিন ম্যাচ উতরে গিয়েছে না হেরে৷ তবে ‘ডি’ গ্রুপে আইসল্যান্ডের কাছে আর্জেন্টিনার আটকে যাওয়া ও ‘এফ’ গ্রুপে মেক্সিকোর কাছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন জার্মানির হার কার্যত রাশিয়া বিশ্বকাপের শুরুতেই অঘটন হিসাবে বিবেচিত হচ্ছে৷ অঘটনের তালিকা আরও দীর্ঘ হল ‘ই’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল সুইজারল্যান্ডের কাছে আটকে যাওয়ায়৷ প্রথমার্ধে কুটিনহোর গোলে এগিয়ে গিয়েও নেইমাররা ১-১ গোলে ড্র করে সুইসদের বিরুদ্ধে৷

 

গত বিশ্বকাপের দুঃস্বপ্ন চাপা দেওয়ার অভিযানে থাকা ব্রাজিলের শুরুটা ভালো হলো না। ফিলিপে কৌতিনিয়োর গোলে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে এগিয়ে গিয়েছিল ব্রাজিল। দ্বিতীয়ার্ধের পঞ্চম মিনিটে সমতা ফেরান স্টিভেন জুবার। পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরাই ম্যাচের প্রথম ভালো সুযোগটা পেয়েছিল। একাদশ মিনিটে বাঁ  দিক থেকে থেকে নেইমারের শট এক জনের পায়ে লাগলে পেয়ে যান পাওলিনিয়ো। কিন্তু ছয় গজের বক্সের প্রান্ত থেকে ঠিকমতো শট নিতে পারেননি বার্সেলোনার এই মিডফিল্ডার। বলে কোনোরকমে আঙুল ছুঁইয়ে দলকে বাঁচান গোলরক্ষক।

 

ছোটো পাসে বল নিয়ে বার বার ডি-বক্সে ঢুকেও যখন কাজ হচ্ছিল না তখন ২০তম মিনিটে গোল এল কৌতিনিয়োর দূরপাল্লার শটে। মার্সেলোর ক্রস সুইজারল্যান্ডের একজন খেলোয়াড় হেড করে বিপদমুক্ত করতে গেলে পেয়ে যান বার্সলোনার এই মিডফিল্ডার। বাঁকানো শট পোস্টের ভেতর দিকে লেগে জালে জড়ায়। দ্বিতীয়ার্ধের পঞ্চম মিনিটে কর্নার থেকে হেড করে সমতা ফেরান ছয়গজের বক্সে অরক্ষিত অবস্থায় থাকা হফেনহাইমের মিডফিল্ডার জুবার।

 

দ্বিতীয়ার্ধে সমানতালে খেলে সুইসরা। ম্যাচের শেষ দিকে নেইমারে হেড গোলরক্ষক বরাবর গেলে আর ফিরমিনোর হেডে গোলরক্ষক ইয়ান সমার দুর্দান্ত সেভ করলে জেতা হয়নি তিতের দলের।

LEAVE A REPLY