যেভাবে সবচেয়ে কম বয়সে বিলিয়নিয়ার হলেন তিনি

23

মার্ক জাকারবার্গ, জাফ বেজোস, সান্টিয়াগো কিংবা আলেকজান্দ্রা আন্ডারসনের নাম শুনেননি এমন মানুষ বর্তমানে খুঁজে পাওয়া কঠিন। বিশ্বের তরুণ-তরুণী ধনীদের তালিকায় যাদের নামই প্রথম উচ্চারিত হয়, তাদের কেউ প্রযুক্তিকে ব্যবহার করে, আবার কেউ প্রযুক্তিতে অপব্যবহার করে বিগত দুই দশকে বিলিয়নিয়ারের তালিকায় নাম লিখিয়েছেন।

প্রযুক্তির কল্যাণে তাদের নাম বর্তমান প্রজন্মের কাছে আইকন হিসেবে দাঁড়িয়ে গেলেও এবার তাদেরই পেছনে ফেলেছেন মার্কিন মডেল অভিনেত্রী ও উদ্যোক্তা কাইলি জেনার।

প্রভাবশালী ফোর্বস ম্যাগাজিন বিলিয়নিয়ারদের তালিকায় বিশ্বের সবচেয়ে কম বয়সী বিলিয়নিয়ার হিসেবে জায়গা করে নিয়েছেন এই মার্কিন সেলিব্রেটি। কার্দাশিয়ান পরিবারের সর্বকনিষ্ঠ এই সদস্য বিপুল পরিমাণ সম্পদ আয় করেছেন প্রসাধনীর ব্যবসা থেকে।

টেলিভিশন চ্যানেলের রিয়েলিটি টেলিভিশন সিরিজ ‘কিপিং আপ উইথ দ্য কার্দাশিয়ান্স’ এর একজন অভিনয় শিল্পী হিসেবে সবার নিকট পরিচিতি পেলেও তার নিজের ব্রান্ডের প্রসাধনী সামগ্রী বিক্রি করে বিলিয়নিয়ারের তালিকায় নিজের নাম লিখিয়েছেন।

২১ বছর বয়সী এই তরুণী ‘কাইলি কসমেটিকস’ এর প্রতিষ্ঠাতা। তিন বছর আগে তৈরি করা এই প্রতিষ্ঠানটি গতবছরে আনুমানিক ৩৬০ মিলিয়ন ডলার মূল্যের প্রসাধনী বিক্রি করেছেন।

কাইলি জেনার এর আগে ২৩ বছর বয়সে বিলিয়নিয়ার হয়ে সবচেয়ে কম বয়সে শত কোটি ডলারের মালিক হয়েছিলেন ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ।

বিলিয়নিয়ারের তকমা পাওয়ার পর এই মডেল উদ্যোক্তা ফোর্বসকে বলেন, ‘আমি এ রকম কিছু আশা করিনি। আমি ভবিষ্যৎ অনুমান করিনি। কিন্তু স্বীকৃতি পেয়ে ভাল লাগছে, মনে হচ্ছে কেউ উৎসাহ দিয়ে পিঠ চাপড়ে দিলো।’

ফোর্বসের তালিকা অনুযায়ী, আমাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোস এখনও বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি। তার মোট সম্পদের পরিমাণ ১৩১ বিলিয়ন ডলার। ফোর্বসের হিসাব অনুযায়ী, ২০১৮ সালের চেয়ে তার সম্পদের পরিমাণ বেড়েছে ১৯ বিলিয়ন ডলার।

ফোর্বসের হিসাব অনুযায়ী, ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গের মোট সম্পদের পরিমাণও গত এক বছরে ৮ দশমিক ৭ বিলিয়ন ডলার কমে গেছে। গতবছর ব্যবহারকারীদের তথ্য ফাঁস সংশ্লিষ্ট কেলেঙ্কারির কারণে ফেসবুকের মূল্য প্রায় এক-তৃতীয়াংশ কমে যায়।

বিশ্বের সকল বিলিয়নিয়ারের এই তালিকায় নারীর সংখ্যা মাত্র ২৫২ জন। স্ব-প্রতিষ্ঠিত নারীদের মধ্যে সবচেয়ে বিত্তবান চীনের ওউ ইয়াজুন, যার আনুমানিক মূল্য ৯ দশমিক ৪ বিলিয়ন ডলার। এবারই প্রথম স্ব-প্রতিষ্ঠিত বিলিয়নিয়ার নারীর সংখ্যা উন্নীত হয়েছে ৭২ জনে। গত বছর এই সংখ্যাটি ছিল ৫৬।

৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ তারিখে কার কত সম্পদ আছে সে অনুযায়ী ফোর্বসের এই বিলিয়নিয়ারের তালিকাটি তৈরি করা হয়েছে। ওই দিন সারাবিশ্বে মুদ্রার বিনিময় হার এবং স্টকের মূল্য বিচার করে করা হয় তালিকাটি।

ফোর্বসের হিসেব অনুযায়ী ২০১৯ সালে বিশ্বে বিলিয়নিয়ারের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে দুই হাজার ১৫৩ জন, যেখানে ২০১৮ সালে সংখ্যাটি ছিল দুই হাজার ২০৮ জন।