শাহ নেওয়াজ-টুকু’ নেতৃত্তাধীন জেবিবিএ’র অভিষেকে মানুষের ঢল

20

নিউইয়র্ক: বর্ণাঢ্য আয়োজনে অভিষিক্ত হলেন ‘শাহ নেওয়াজ-টুকু’ নেতৃত্তাধীন জ্যাকসন হাইটস বাংলাদেশী বিজনেস এসোসিয়েশন অব নিউইয়র্ক (জেবিবিএ)-এর নতুন কমিটির (২০১৮-২০২০ সাল) গঠিত কর্মকর্তারা। স্থানীয় বেলোজিনো পার্টি হলে মঙ্গলবার (৩০ অক্টোবর) আয়োজিত এই অভিষেক অনুষ্ঠানে দেশী-বিদেশী ব্যবসায়ী সহ সর্বস্তরের মানুষের ঢল নামে। সেই সাথে বাংলাদেশের ‘ব্ল্যাক ডায়মান্ড’ খ্যাত জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী বেবী নাজনীন সহ ভারতের বোম্বে থেকে আগত সোহিনী মুখার্জী আর প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পী রানো নেওয়াজ, কৃষ্ণা তিথি ও কামরুজ্জামান বকুলের সঙ্গীত সকল দর্শক-শ্রোতাকে মুগ্ধ করে। খবর ইউএনএ’র।

অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত ও বিশেষ দোয়া পরিচালনা করেন ইমাম কাজী কাইয়ুম। এছাড়াও গিতা থেকে পাঠ করেন বিধান চন্দ্র পাল। নতুন প্রজন্মের সানিয়া আলম যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশেনের পর বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়। এসময় জেবিবিএ’র নতুন কমিটির কর্মকর্তারা মঞ্চে ছিলেন। পরবর্তীতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অভিষেক অনুষ্ঠান আয়োজক কমিটির আহ্বায়ক জাহাঙ্গীর আলম। তারপর নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তাদের পরিচয় করিয়ে দেন সহ সভাপতি মোল্লা মাসুদ। পরবর্তীতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী পারভেজ নতুন কমিটির কর্মকর্তাদের পরিচয় করিয়ে দেন। জেবিবিএ’র সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান টুকু বাংলাদেশে অবস্থান করায় অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত ছিলেন বলে জানানো হয়। এসময় নির্বাচন কমিশনের সদস্য আব্দুল লতিফ ভূইয়া ও মাহবুবুর রহমান এবং উপদেষ্টাদের মধ্যে মাহবুব এ চৌধুরী, আনোয়ার হোসেন ও জাকির এইচ মিয়া উপস্থিত ছিলেন।

ব্যতিক্রমী এই অনুষ্ঠানে জেবিবিএ’র নব নির্বাচিত সভাপতি শাহ নেওয়াজ, সাবেক সভাপতি ও উপদেষ্টা পরিষদের অন্যতম সদস্য জাকারিয়া মাসুদ জিকো, আমন্ত্রিত অতিথি নিউইয়র্ক সিটির সাবেক কম্পট্রোলার ও ষ্টেট সিনেটর প্রার্থী জন ল্যু ও সিটি কাউন্সিলম্যান কস্টা। সমগ্র অনুষ্ঠান যৌথভাবে উপস্থাপনায় ছিলেন প্রবাসের বিশিষ্ট উপস্থাপক ও টিভি নিউজ প্রেজেন্টার শামসুন্নার নিম্মি।

অনুষ্ঠানে জেবিবিএ প্রতিষ্ঠা সহ এই সংগঠনের কর্মকান্ডে বিশেষ অবদান ও ভূমিকা রাখার জন্য অনুষ্ঠানে সংগঠনের সাবেক সভাপতি মরহুম সাঈদ রহমান মান্নান ও মরহুম সদস্য হুমায়ুন কবীর খানকে প্ল্যাক দিয়ে মরোনত্তর সম্মান জানানো হয়। সাঈদ রহমান মান্নানের পক্ষে তার কন্যা মাহী এবং হুমায়ুন কবীর খানের পক্ষে তার স্ত্রী সম্মাননা গ্রহণ করেন।
এছড়াও জাতিসংঘ স্বীকৃত একটি এনজিও ‘ইউনাইটেড ন্যাশন্স ইন্টারন্যাশনাল কংগ্রেস’ শিক্ষা ক্ষেত্রে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে খানস টিউটোরিয়াল-এর চেয়ারপার্সন নাঈমা খানকে ‘শুভেচ্ছা দূত বা গুড উইল এম্বেসেডর’ মনোনীত করায় নাঈমা খান সহ কমিউনিটিতে বিশেষ অবদান রাখার জন্য জেবিবিএ’রর পক্ষ থেকে বিশিষ্ট রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী মইনুল ইসলাম ও নূরুল আমীন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ফখরুল ইসলাম দেলোয়ার এবং ‘জ্যাকবস হাইটস এলাকাবাসী’ সংগঠন-কে প্ল্যাক প্রদান করা হয়।অনুষ্ঠানে জেবিবিএ’র সভাপতি শাহ নেওয়াজ তার বক্তব্যে জেবিবিএ-কে একটি অরাজনৈতিক এবং ব্যবসায়ীদের সংগঠন হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, আমরা সকল ব্যবসায়ী মিলেমিলে কাজ করে জেবিবিএ-কে আরো শক্তিশালী করতে চাই, বাংলাদেশী ব্যবসা আর ব্যবসায়ীদের প্রসার ঘটাতে চাই। এজন্য তিনি সংশ্লিস্ট সবার সহযোগিতা কামনা এবং জেবিবিএ’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও অপরাংশের সভাপতি আবুল ফজল দিদারুল ইসলমের বাবা মোহাম্মদ রহমত উল্লাহ’র ইন্তেকালে গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ সহ মরহুম সাঈদ রহমান মান্নান ও ড. মনসুর খান সহ জেবিবিএ’র সদস্য-কর্মকর্তাদের মধ্যে যারা ইন্তেকাল করেছেন তাদের শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন।