‘সালমান শাহ ছিলেন তারকা খচিত নায়ক, মান্না ছিলেন গবেষক’

0
216
‘সালমান শাহ ছিলেন তারকা খচিত নায়ক, মান্না ছিলেন গবেষক’
‘সালমান শাহ ছিলেন তারকা খচিত নায়ক, মান্না ছিলেন গবেষক’

ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় খল-অভিনেতা ও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর। ‘নতুন মুখের সন্ধানে’ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে সিনেমায় আসেন তিনি। দীর্ঘদিন পর আবার এই প্রতিযোগিতা শুরু হতে যাচ্ছে।

গত শনিবার (১৪ জুলাই) রাজধানীর ঢাকা ক্লাবে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির উদ্যোগে এই প্রতিযোগিতার কার্যক্রমের চুক্তি স্বাক্ষর ও লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেই অনুষ্ঠানে মিশা বলেন, ‘আমাকে কেউ যদি প্রশ্ন করেন, সালমান শাহ নাকি মান্না, কার মৃত্যুর পর চলচ্চিত্রের সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে? আমি বলব, মান্না মারা যাওয়ার পর চলচ্চিত্রের বড় ক্ষতি হয়েছে। সালমান শাহ শুধু তারকা খচিত নায়ক ছিলেন, কিন্তু নায়ক মান্না ছিলেন গবেষক। দেশের চলচ্চিত্র এখন মহাসংকটের মধ্য দিয়ে পার হচ্ছে। শুধু তা-ই নয়, দেশের চলচ্চিত্রে এখন যে সংকট চলছে, তার জন্য মান্নার মৃত্যু দায়ী।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমি চলচ্চিত্রের শিল্পীদের প্রতিনিধিত্ব করছি। আমি বলতে পারি, এ দেশে এখন কোনো শিল্পী নেই। এ মুহূর্তে বক্স অফিস মাতাবে, মানুষ দেখে খুশি হবে, মানুষের ভেতরটা তালি দেবে, দর্শক টাকা খরচ করে যাদের ছবি দেখতে যাবে এরকম শিল্পী আছে চার থেকে পাঁচজন। ১৮ কোটি মানুষের জন্য তা যথেষ্ট নয়। এখন শিল্পীর বড় অভাব!’

মান্না, সোহেল চৌধুরী, দিতি, অমিত হাসান, আমিন খান, মিশা সওদাগরসহ জনপ্রিয় অনেক শিল্পী ‘নতুন মুখের সন্ধানে’ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে চলচ্চিত্রের সঙ্গে যুক্ত হয়েছিলেন। ২৮ বছর পর আবার শুরু হচ্ছে ‘নতুন মুখের সন্ধানে’ প্রতিযোগিতা। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন সংস্থার (বিএফডিসি) উদ্যোগে এর আগে ১৯৮৪, ১৯৮৮ ও ১৯৯০ সালে ‘নতুন মুখের সন্ধানে’ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

LEAVE A REPLY