ফারহানা নিশো ইস্যুতে ক্ষোভ ঝাড়লেন ওমর সানী

0
142

একুশে টেলিভিশনের অনুষ্ঠান প্রধানের পদ থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে জনপ্রিয় টিভি ব্যক্তিত্ব ফারহানা নিশোকে। বুধবার সকালে প্রতিষ্ঠানের মানবসম্পদ বিভাগ থেকে তাকে বরখাস্তের একটি বিজ্ঞপ্তি পাঠানো হয় সকল বিভাগীয় প্রধানের কাছে। কোম্পানি সচিব ও মানবসম্পদ প্রধান মো. আতিকুর রহমানের স্বাক্ষরিত অফিসের নোটিশ বোর্ডেও ঝুলিয়ে দেয়া ঐ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এতদ্বারা সংশ্লিষ্ট সকলের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, অনুষ্ঠান প্রধান ফারহানা শবনম নিশোকে কর্তৃপক্ষের আদেশক্রমে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। এ আদেশ অবিলম্বে কার্যকর হবে। তবে ঠিক কী কারণে তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে সেটি এখনো একুশে টেলিভিশন থেকে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

জানা গেছে, সম্প্রতি বনানীতে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী ধর্ষণ মামলার আসামি নাঈম আশারাফের সঙ্গে নিশোর একাধিক ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। এ কারণে তাকে অব্যাহতি দেয়া হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এদিকে, নিশোর বরখাস্তের খবরে অনেকেই সমালোচনা করেছেন। বলছেন, শুধু একজন ধর্ষকের সঙ্গে ছবি থাকতেই যদি বরখাস্ত করা হয় তাহলে সেটা অন্যায়। বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে ১২টার দিকে এক ফেসবুক স্টাটাসে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন জনপ্রিয় অভিনেতা ওমর সানী। কড়া সমালোচনা করেছেন একুশে টেলিভিশন কর্তৃপক্ষের। নিচে তার ফেসবুক স্টাটাসটা তুলে ধরা হলো-

ওমর সানী ফেসবুক পোষ্ট থেকে নেওয়াওমর সানী ফেসবুক পোষ্ট থেকে নেওয়াওমর সানী ফেসবুক পোষ্ট থেকে নেওয়াওমর সানী ফেসবুক পোষ্ট থেকে নেওয়া‘‘মানুষ বড়, মুচি সম্প্রদায় থেকে শুরু করে মন্ত্রী পর্যন্ত যে কোন মানুষের সাথে আমাদের ছবি এবং সেলফি থাকতে পারে। আমরা জানি না কে কি। আমার স্ত্রী একজন অভিনেত্রী, তার সাথেও ছবি থাকতে পারে। সে কিন্তু জানে না কে যৌন কর্মী কে ধর্ষনকারী কে জঙ্গী কিংবা ডাকাত বা হুজুর। আমরা যারা শিল্পী তাদের সব শ্রেণীর ভক্ত থাকতে পারে। তাহলে একটা সেলফির কারনে ফারহানা নিশুর চাকরী যাবে কেন এবং তার দোষ হবে কেন। খুব কাছ থেকে নিশুকে দেখেছি ইটিভি চ্যানেলের প্রতি তার টান। ব্যক্তিগত কারনে ইটিভির অনুষ্ঠান করা ছেড়ে দিয়েছিলাম। ফারহানার কারনে আমি আর মৌসুমী গিয়ে ছিলাম। ও– একটি কথা ব্যক্তিগত দোষের কারনে যদি চাকরী যায় তাহলে আমার বলার কিছু নাই। সেলফির কারনে যদি দোষ দেন, তাহলে এরকম দোষে আমরা অনেক শিল্পীরাই দোষী। নিজেকে প্রশ্ন করুন। আপনি কি ধোয়া তুলশী পাতা?
বিঃদ্রঃ প্রতিটা ধর্ষনকারীর দৃষ্টান্ত মুলক বিচার চাই।। Omar sani’’

নাঈম আশারাফ ও ফারাহানা নিশোনাঈম আশারাফ ও ফারাহানা নিশোউল্লেখ্য, ফারহানা নিশো গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে একুশে টেলিভিশনে যোগ দেন। তখনই তার যোগদান নিয়ে চ্যানেলকর্মীদের মধ্যে অনেক দ্বন্দ্ব তৈরি হয়। এর আগে চ্যানেল ওয়ান ও বৈশাখী টিভি’র করপোরেট অ্যাফেয়ার্স বিভাগের প্রধান হিসেবেও কাজ করেছেন নিশো। ২০০৩ সালে এনটিভিতে সংবাদ উপস্থাপক হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু হলেও মাঝে গ্রামীণফোনের টেকনিক্যাল ডিভিশন ও ওয়ারিদ টেলিকমে প্রোজেক্ট ম্যানেজমেন্ট বিভাগেও কাজ করেন বেশ কিছুদিন।

LEAVE A REPLY