সড়কমন্ত্রী হিসেবে একদিকে রাস্তার খেয়াল রাখবেন, একইসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নেতা-কর্মীদের খোঁজখবর নেবেন বলে জানিয়েছেন সদ্যনির্বাচিত ওবায়দুল কাদের।

সোমবার রাজধানীর ধানমন্ডির প্রিয়াঙ্কা কমিউনিটি সেন্টারে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘একদিকে রাস্তা দেখব অন্যদিকে দলের নেতা-কর্মীদের অভিযোগের সমাধান স্পটেই দিতে পারব। প্রয়োজনে পার্টির সভাপতি শেখ হাসিনা ও অন্যান্য সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে অন স্পটেই সমাধান দিতে পারব। এটাই আমার এখন বাড়তি লাভ, বাড়তি পরিশ্রম না।’

তিনি বলেন, ‘আমি পরিশ্রমের সর্বোচ্চ পুরস্কার জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে পেয়েছি। আমার আপাতত দুটো লক্ষ্য- সংগঠনকে তৃণমূল পর্যন্ত অত্যন্ত সুসংগঠিত ও সুশৃঙ্খলা করা এবং আগামী নির্বাচনের জন্য একটি শক্তিশালী টিম ওয়ার্ক গড়ে তুলতে এখনই কাজ শুরু করা।’

আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত এই সাধারণ সম্পাদক আরো বলেন, ‘সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আমার নাম সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম ঘোষণা করেছেন। এটাই শেখ হাসিনার নেতৃত্বের ম্যাজিস্ট্রেসি।’

LEAVE A REPLY