স্বদেশে প্রবাসীদের স্বপ্নের নীড় রচনায় রূপালী ব্যাংকের বিশেষ কর্মসূচি

0
94
সেমিনারে বক্তব্য রাখছেন আতাউর রহমান প্রধান।
সেমিনারে বক্তব্য রাখছেন আতাউর রহমান প্রধান।

প্রিয় মাতৃভূমিতে প্রবাসীদের স্বপ্নের নীড় রচনায় এগিয়ে এলো রূপালী ব্যাংক। মাত্র ৯% সুদে একেকজনকে সর্বোচ্চ দুই কোটি টাকা পর্যন্ত ঋণ-প্রকল্প চালুর ঘোষণা দিল ব্যাংকটি।
৬ অক্টোবর শুক্রবার নিউইয়র্কে প্রবাসীদের এক সমাবেশে এ তথ্য প্রকাশ করেছেন রূপালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আতাউর রহমান প্রধান। ‘বাংলাদেশে অর্থ প্রেরণে প্রবাসীদের ভূমিকা’ শীর্ষক সেমিনারে বক্তব্য উপস্থাপনকালে রূপালী ব্যাংকের এই কর্মকর্তা আরো বলেছেন, রাজধানী ঢাকাসহ বিভাগীয় শহরে এপার্টমেন্ট ক্রয় এবং নিজ ভূমিতে এপার্টমেন্ট নির্মাণের জন্যে এই ঋণ প্রকল্প চালূ করা হয়েছে। তবে আবেদনকারি প্রবাসীকে ৩০% ব্যয় করতে হবে। ব্যাংক ঋণদান করবে ৭০%। যুক্তরাষ্ট্র থেকে রূপালী ব্যাংকের (যা শীঘ্রই নিউইয়র্কে চালু হতে যাচ্ছে) রেমিটেন্স হাউজের মাধ্যমে ঋণের কিস্তি পরিশোধ করতে হবে।’
ঋণের আবেদনপত্রে নিজের পাসপোর্ট এবং কর্মক্ষেত্রের প্রত্যায়নপত্র অথবা ট্যাক্স প্রদানের কপি দিতে হবে। বাংলাদেশের একজন গ্যারান্টারও লাগবে। এ প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত করতে রূপালী ব্যাংকের সদর দফতরে ‘প্রবাসী হেল্প ডেস্ক’ চালু করা হচ্ছে বলেও উল্লেখ করেন আতাউর রহমান প্রধান।
ইংল্যান্ডে সোনালী এক্সচেঞ্জে সাড়ে তিন বছর দায়িত্ব পালনের অভিজ্ঞতায় আতাউর রহমান বলেন, ‘স্বদেশে নীড় রচনায় রূপালী ব্যাংক প্রবাসীদের পাশে দাঁড়াতে চায়। প্রবাসীদের প্রেরিত অর্থে বাংলাদেশের অর্থনীতি চাঙ্গা রয়েছে। রূপালী ব্যাংকের এই কর্মসূচি অবশ্যই প্রবাসীদের প্রত্যাশার প্রতিফলন ঘটাতে অপরিসীম ভ’মিকা রাখবে-এতে কোনই সন্দেহ নেই।’
এ সময় আতাউর রহমান প্রধান বিশেষভাবে উল্লেখ করেন, ‘স্বদেশে ছোট-বড়-মাঝারি শিল্প কারখানার জনেও রূপালী ব্যাংক প্রবাসীদের ঋণ দিচ্ছে ঐ একই বিধিতে অর্থাৎ ৩০% বিনিয়োগের পর ৭০% প্রদান করছে রূপালী ব্যাংক। ইতিমধ্যেই অনেক প্রবাসী সে সুযোগ গ্রহণ করেছেন।’
সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন রূপালী ব্যাংকের চেয়ারম্যান মঞ্জুর হোসেন। তিনি বলেন, ‘প্রবাসীদের কষ্টার্জিত অর্থ জাতীয় কল্যাণে ব্যয় করা হয়। তবে সে অর্থ যদি বৈধপথে বাংলাদেশে যায়। বৈধপথে প্রেরিত অর্থে নিজ দেশে প্রবাসীরা অনেক কিছু করছেন। শুধু তাই নয়, অর্থ প্রেরণকারিদের সম্মান জানানোর ব্যবস্থাও রয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংকের মাধ্যমে।’
রূপালী ব্যাংক সব সময় প্রবাসীদের পাশে উদারচিত্তে অবস্থান করে দাবি করে মঞ্জুর হোসেন বলেন, ‘সহজ শর্তে বাড়ির মালিক হবার ঋণের এ প্রস্তাব আমেরিকা প্রবাসীরা লুফে নেবেন বলে আশা করছি। এ ঋণের ক্রাইটেরিয়া পূরণের পর কোন ঝক্কি-ঝামেলা থাকবে না। হেল্্প ডেস্কের মাধ্যমে যাবতীয় সহায়তা প্রদানের নিশ্চয়তা রয়েছে।’
যুক্তরাষ্ট্রস্থ ‘এবিসিসিআই’ নামক একটি সংস্থার উদ্যোগে জ্যাকসন হাইটসে বেলাজিনো পার্টি অনুষ্ঠিত এ সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন সংস্থাটির প্রধান হাসানুজ্জামান হাসান। সেমিনারে প্যানেলিস্ট হিসেবে আরো বক্তব্য রাখেন জাতিসংঘে বাংলাদেশের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের চেয়ারম্যান ড. এ কে এ মোমেন। ড. মোমেন বলেন, ‘বাংলাদেশ এগিয়ে চলছে শেখ হাসিনার বিচক্ষণতাপূর্ণ নেতৃত্বের গুণে। এগিয়ে চলার এই গতি ত্বরান্বিত করছেন প্রবাসীরা। বাংলাদেশের মত এই প্রবাসেও উন্নয়নের সাথে প্রায় সকল প্রবাসীই একিভ’ত হয়েছেন।’
উপস্থিত সুধীজনের মধ্য থেকে বিষয়ের উপর আলোকপাত করেন ফাহাদ সোলায়মান, পল খান এবং আব্দুর রাজ্জাক।
সর্বস্তরে প্রতিনিধিত্বকারি প্রবাসীরা উপস্থিত ছিলেন এ অনুষ্ঠানে।

LEAVE A REPLY