চীন ও ভারতের চেয়ে বেশি প্রবৃদ্ধি বাংলাদেশে

0
52
চীন ও ভারতের চেয়ে বেশি প্রবৃদ্ধি বাংলাদেশে
চীন ও ভারতের চেয়ে বেশি প্রবৃদ্ধি বাংলাদেশে

চলতি বছরে চীন ও ভারতের চেয়ে বাংলাদেশের বেশি প্রবৃদ্ধি হবে। চলতি বছরে মোট দেশজ উৎপাদনের প্রবৃদ্ধি (জিডিপি) ৭ দশমিক ১ শতাংশ হবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)। আইএমএফ বলছে, এ বছর ভারতের ৬ দশমিক ৭ শতাংশ ও চীনের ৬ দশমিক ৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হতে পারে।
আইএমএফ আরও বলেছে, আগামী দুই বছর অর্থাৎ ২০১৮ ও ২০১৯ সালে বাংলাদেশে ৭ শতাংশ করে প্রবৃদ্ধি হবে। আইএমএফের ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক আউটলুকে এই পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। এই হিসাব পঞ্জিকাবর্ষ ধরে করা হয়েছে। বাংলাদেশে অর্থবছর (জুলাই-জুন) ধরে প্রবৃদ্ধি হিসাব করা হয়।
চলতি অর্থবছরে সরকার ৭ দশমিক ৪ শতাংশ প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে। গত অর্থবছরে ৭ দশমিক ২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছে বলে সাময়িক প্রাক্কলন করেছে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস)। অন্যদিকে বিশ্বব্যাংক বলেছে, চলতি অর্থবছরে ৬ দশমিক ৪ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হতে পারে। এডিবির পূর্বাভাস হলো, প্রবৃদ্ধি হবে ৬ দশমিক ৯ শতাংশ। এই দুটি সংস্থা অর্থবছরের হিসাবে এই পূর্বাভাস দিয়েছে।
আইএমএফের প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, এ বছর বাংলাদেশের গড় মূল্যস্ফীতি দাঁড়াবে ৫ দশমিক ৭ শতাংশ। প্রতিবেদনে বাংলাদেশকে উদীয়মান ও উন্নয়নশীল এশিয়ার দেশ হিসেবে দেখানো হয়েছে।
বিশ্ব পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করে আইএমএফ আরও বলেছে, চলতি বছরে বিশ্বের গড় জিডিপি প্রবৃদ্ধি হবে ৩ দশমিক ৬ শতাংশ। ২০১৮ সালে তা বেড়ে দাঁড়াবে ৩ দশমিক ৭ শতাংশ। ২০১৭ সালে যুক্তরাষ্ট্রের প্রবৃদ্ধি হতে পারে ২ দশমিক ৪ শতাংশ।

LEAVE A REPLY