কোন প্রশ্নের জবাব দিয়ে বিশ্বসুন্দরীর মুকুট জিতলেন মানুষী, জানেন?

0
92
কোন প্রশ্নের জবাব দিয়ে বিশ্বসুন্দরীর মুকুট জিতলেন মানুষী, জানেন?
কোন প্রশ্নের জবাব দিয়ে বিশ্বসুন্দরীর মুকুট জিতলেন মানুষী, জানেন?

বিশ্বের সেরা সুন্দরীদের পেছনে ফেলে যিনি মুকুট জিতে নেন, তিনিই বিশ্বসুন্দরীর খেতাব পান। এই বছর সেরা সুন্দরীর মুকুট ছিনিয়ে নিলেন ভারত সুন্দরী মানুষী ছিল্লার। ১৭ বছর পর আবার ভারতে ফিরল মিস ওয়ার্ল্ডের মুকুট। নানারকম পরীক্ষা দিয়েই এই মুকুট অর্জন করেছেন তিনি। এই আয়োজনের শেষ ধাপে কিছু প্রশ্নের বুদ্ধিদীপ্ত জবাব দিয়ে নিজেকে সেরা প্রমাণ করার প্রক্রিয়ার সকলের মন জিতে নেন মানুষী। কি ছিল সেই প্রশ্ন? কি জবাব দিয়েছিলেন মানুষী, জানেনশনিবার বেজিংয়ে অনুষ্ঠিত মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতার প্রতিযোগী মানুষীকে প্রশ্ন করা হয়, ‘কোন পেশার মানুষের সবচেয়ে বেশি বেতন হওয়া উচিত এবং কেন?’ এই প্রশ্নের উত্তরেই বাজিমাত করেছেন হরিয়ানার এই তরুণী। ডাক্তারি পড়ুয়া এই সুন্দরী বলেন, ‘সবচেয়ে বেশি সম্মান পাওয়া উচিত মায়ের। শুধুমাত্র টাকা নয়, মাকে সবসময় ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা করা উচিত। আমার মা আমার কাছে সবচেয়ে বড় আদর্শ। তাই মায়েরাই সবচেয়ে বেশি বেতন পাওয়ার যোগ্য।’
কাকতালীয় হলেও সত্যি, ঠিক একইভাবে ২০০০ সালে মিস ওয়ার্ল্ডের খেতাব জিততে মা নিয়ে দেওয়া উত্তর সাহায্য করেছিল প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে। সেবার প্রিয়াঙ্কার কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল, ‘এখনকার কোন মহিলাকে আপনি সবচেয়ে সফল বলে মনে করেন এবং কেন?’ উত্তরে প্রিয়াঙ্কা বলেছিলেন, ‘আমি অনেককে নিজের আদর্শ বলে মনে করি। কিন্তু সবচেয়ে শ্রদ্ধা করি মাদার তেরেসাকে।’ মাদার তেরেসাকে আদর্শ হিসেবে জানানোতেই তার মিস ওয়ার্ল্ডের খেতাব পাওয়া অনেক সহজ হয়েছিল বলেই মনে করা হয়।

মানুষী এই প্রতিযোগিতায় ষষ্ঠ ভারতীয় হিসেবে সেরার মুকুট জিতলেন। ১৯৬৯ সালে প্রথমবার বিশ্বসুন্দরীর খেতাব জিতেছিলেন রীতা ফারিয়া। তার ২৫ বছর পর ফের বিশ্ব সুন্দরীর মুকুট ফেরে ভারতে। সেবার সেরা হন সুস্মিতা সেন। এরপরের বছর মুকুট জেতেন ঐশ্বরিয়া রাই। তারপর আরও তিন জন এই খেতাব পেয়েছেন। ১৯৯৭ সালে বিশ্বসুন্দরী হয়েছিলেন ডায়না হেডেন। দু’বছর পর ওই খেতাব পান যুক্তামুখী। আর ২০০০ সালে পেয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। প্রত্যেকেই প্রশ্নের বুদ্ধিদীপ্ত উত্তর দিয়ে সেরার শিরোপা পেয়েছিলেন।
উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের এই মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফাইনাল অনুষ্ঠানটি অনুষ্ঠিত হয়েছে চায়নায় সানয়া সিটিতে। এই প্রতিযোগিতায় সারা বিশ্ব থেকে মোট ১১৮ জন প্রতিযোগী অংশ নিয়েছিলেন। এরইমধ্যে সবাইকে টেক্কা দিয়ে মুকুট জয় করে নিলেন ২০ বছর বয়সী এই তরুণী। সেদিন এই প্রতিযোগিতায় প্রথম রানার আপ হয়েছেন মেক্সিকোতে বসবাসকারী ২৩ বয়সী তরুণী আন্দ্রেয়া মেজা এবং দ্বিতীয় রানার আপ হয়েছেন ইংল্যান্ডে বসবাসকারী ২২ বছর বয়সী স্টেফানি হিল।
সূত্র: ডিএনএ ইন্ডিয়া

LEAVE A REPLY