মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণ জরুরি: ট্রাম্প

0
62
ট্রাম্প
ট্রাম্প

মার্কিন কংগ্রেসে যে কোন অভিবাসন চুক্তির সংশোধনী আনতে হলে মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণে তহবিলের বিষয়টি রাখতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মার্কিন নির্বাচনে ট্রাম্প শিবিরের সঙ্গে রাশিয়ার কোন যোগসাজশ ছিল না বলে আবারও জোর দিয়েছেন ট্রাম্প। বুধবার হোয়াইট হাউসে সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প এসব কথা বলেন। এছাড়া আফিম পাচার বন্ধে আইন করতে নিষেধাজ্ঞা নীতিতে স্বাক্ষর করেছেন ট্রাম্প।

সম্প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সংক্ষিপ্ত রাজনৈতিক জীবনের ওপর লেখা সাংবাদিক মাইকেল ওল্ফের বই নিয়ে ব্যাপক তোলপাড়ের মধ্যে এবার মানহানিকর লেখা ছাপানোর আইন আরও কঠোর করা নিয়ে ভাবছেন ট্রাম্প। বইটিতে তার মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন লেখক। তার পরিপ্রেক্ষিতে এমন পদক্ষেপ নেয়ার কথা ভাবছেন তিনি। মার্কিন নির্বাচনী প্রচারণার সময়ও বর্তমান আইনের শিথিলতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন ট্রাম্প। বইটি প্রকাশের পর বুধবার মন্ত্রিসভার সদস্যদের সঙ্গে বৈঠকে তিনি যেন বিষয়টি জোর দেয়ার যৌক্তিক কারণ দেখাতে পেরেছেন।

ট্রাম্প বলেন ‘আমাদের বর্তমান আইন যেটি আছে সেটি আমেরিকার মূল্যবোধের পরিপন্থী। কেউ পুরোপুরি মিথ্যা বললে আর তাকে অর্থ উপার্জনের পথ ভেবে নিলে, তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে আমরা আইন সংশোধনের চিন্তা ভাবনা করছি।’

একই বৈঠকে তিনি ডাকা কর্মসূচি বাতিলের ফলে যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদের সাহায্য করার কথা জানিয়েছেন। বাবা মায়ের হাত ধরে যুক্তরাষ্ট্রে আসা শিশুদের বৈধতা দিতে ডাকা কর্মসূচি চালু ছিলো। ট্রাম্প তা বাতিল করে দেয়ায় বিপাকে পড়েছে বহু মানুষ।

একই দিন মাদক প্রবেশের ঢল বন্ধে এবং নিরাপত্তা রক্ষার স্বার্থে মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণ জরুরি বলে উল্লেখ করেন ট্রাম্প। কংগ্রেসে যে কোন অভিবাসন চুক্তির সংশোধনী আনতে হলে মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণে তহবিলের বিষয়টি রাখতে হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। নরওয়ের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর হোয়াইট হাউসে সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প এ মন্তব্য করেন। একই সংবাদ সম্মেলনে তাকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার সঙ্গে ট্রাম্প শিবিরের যোগসাজশের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি আবারও জোর দিয়ে তা অস্বীকার করেন।

ট্রাম্প বলেন, ‘১১ মাস ধরে আমি দায়িত্বে আছি, আমি অস্বীকার করার পরও এই পুরো সময় জুড়ে ঘুরে ফিরে এই এক বিষয় নিয়ে মাথা ঘামাচ্ছে সবাই। এটা আমাদের প্রশাসনের কাজে ব্যাঘাত ঘটাচ্ছে। এটা ডেমোক্রেটদের চাল, তারা নির্বাচনে জিততে পারেনি তাই রাশিয়ার সাথে আমাদের যোগসাজশের বিষয়টি টেনে পরাজয়ের কারণ হিসেবে দেখানোর চেষ্টায় আছে তারা।’

একইদিন আফিম পাচার বন্ধে আইন করতে নিষেধাজ্ঞা নীতিতে স্বাক্ষর করেন ট্রাম্প। তিনি জানান ২০১৬ সালে আফিম ব্যবহার করে অন্তত বিশ হাজার মার্কিন মারা গেছে।

LEAVE A REPLY