বিএন‌পির হাল ধরছেন তা‌রেক রহমান?

0
12

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া কারাবন্দি থাকায় সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান দলটির হাল ধরতে পারেন।

বিএনপির দফতর সূ‌ত্রে এ তথ্য জানা গে‌ছে।

দলটির গঠনতন্ত্র সংশোধনবিষয়ক কমিটির প্রধান‌ ও বিএন‌পির স্থায়ী ক‌মি‌টির সদস্য নজরুল ইসলাম খান জানান, ৯ ফেব্রয়ারি, শুক্রবার বিএন‌পির মহাস‌চিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর আনুষ্ঠানিকভাবে দলীয় গঠনত‌ন্ত্রে চেয়ারপারস‌নের অনুপস্থিতিতে দ‌লের দা‌য়ি‌ত্বে কে থাক‌ছেন, তা ঘোষণা কর‌তে পা‌রেন।

গঠনতন্ত্রে সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যানের কর্তব্য, ক্ষমতা ও দায়িত্ব সংক্রান্ত (গ) (২) এর (৩) অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘চেয়ারম্যানের সাময়িক অনুপস্থিতিতে তিনি দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।’

অন্যদিকে (গ) এর (৩) অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘যেকোনো কারণে চেয়ারপারসনের পদ শূন্য হলে সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান অবশিষ্ট মেয়াদের জন্য চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।’

নজরুল ইসলাম খান ব‌লেন, ‘গঠনতন্ত্রের ৭ নম্বর ধারা ২০১৬ সালের ১৯ মার্চে কাউন্সিলরদের সর্বসম্মতিক্রমে বাতিল করেছে বিএনপি।’

গঠনতন্ত্রের ৭ নম্বর ধারায় বলা ছিল, ‘কমিটির সদস্যপদের অযোগ্যতা- নিম্নোক্ত ব্যক্তিগণ জাতীয় কাউন্সিল, জাতীয় নির্বাহী কমিটি, জাতীয় স্থায়ী কমিটি বা যেকোনো পর্যায়ের যেকোনো নির্বাহী কমিটির সদস্য পদের কিংবা জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলের প্রার্থী পদের অযোগ্য বলে বিবেচিত হবে। (ক) ১৯৭২ সালের রাষ্ট্রপতির আদেশ নং ৮-এর বলে দণ্ডিত ব্যক্তি; (খ) দেউলিয়া; (গ) উন্মাদ বলে প্রমাণিত ব্যক্তি; (ঘ) সমাজে দুর্নীতিপরায়ণ বা কুখ্যাত বলে পরিচিত ব্যক্তি।’

গত ২৮ জানুয়ারি নির্বাচন কমিশনে সংশোধিত গঠনতন্ত্র জমা দেয় বিএনপি।

দুই শীর্ষ নেতার সাজা হওয়ার পর দলের নেতৃত্বে কার হাতে থাকবে এমন প্রসঙ্গে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হো‌সেন প্রিয়.কম‌কে বলেন, ‘বিএন‌পির নেতৃত্ব দি‌চ্ছেন খা‌লেদা জিয়া। কা‌জেই নেতৃত্ব নি‌য়ে কোনো প্রশ্ন নেই। বি‌শেষ প্র‌য়োজ‌নে দলের সিনিয়র নেতারা সমন্বয় করেই দল চালাবে।’

এর আগে রাজধানীর বকশীবাজার আলিয়া মাদ্রাসাসংলগ্ন প্যা‌রেড মা‌ঠে অবস্থিত বিশেষ জজ আদালতের বিচারক ড. আখতারুজ্জামান জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার রায় ঘোষণা করেন।

রায়ে খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দেন আদালত। বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ বাকি পাঁচ আসামির প্রত্যেককে ১০ বছর করে কারাদণ্ড ও দুই কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

LEAVE A REPLY