জেএসসি ও পিইসি’র ফল প্রকাশ

0
60
PSC and JSC
PSC and JSC

প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী সমাপনী (পিইসি), জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষার ফল প্রকাশ হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে এ ফলাফল হস্তান্তর করেন শিক্ষামন্ত্রী এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী।

পিইসিতে পাশের হার ৯৮.৫১ শতাংশ এবং জেএসসিতে ৯২.৩৩ শতাংশ, জেডিসিতে ৯৮.০২ শতাংশ। মোট জিপিএ-ফাইভ পেয়েছে ৫১ হাজার ৩শ ২৫ জন। জেএসসিতে জিপিএ ৫ পেয়েছে ২ লাখ ৪৭ হাজার ৫৮৮। পিইসিতে জিপিএ ৫ পেয়েছে ২ লাখ ৩৫ হাজার ৫৯।

জেএসসি ও জেডিসি

এ বছর জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় পাশ করেছে ২১ লাখ ৮৩ হাজার ৯৭৫জন। জিপিএ ফাইভ পেয়েছে ২ লাখ ৪৭ হাজার ৫শ’ ৮৮ জন। পাশের হার বেড়েছে শূন্য দশমিক ৭৩ শতাংশ। শতভাগ পাশ করেছে ৯ হাজার ৪শ’ ৫০ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী। একজনও পাশ করেনি ২৮টিতে।

এ বছর ছেলেদের তুলনায় ১ লাখ ৪৬ হাজার ১শ’ ৩৭ জন বেশি ছাত্রী পাশ করেছে।

বৃহস্পতিবার সচিবালে নিজ দপ্তরে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য তুলে ধরেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধ এবং সঠিক সময়ে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেয়ার কারণে ভাল ফলাফল অর্জিত হয়েছে বলে জানান শিক্ষামন্ত্রী।

এসময় তিনি আরো বলেন দেশে শিক্ষার মান বেড়েছে ফলাফলে তা ফুটে উঠেছে। তবে বিশ্বমান থেকে দেশের শিক্ষার মান অনেক পিছিয়ে আছে বলেও মনে করেন শিক্ষামন্ত্রী।

এদিকে জেএসসিতে চট্টগ্রামে ৯০.৭৫ শতাংশ, সিলেটে ৯৩.৩৭ শতাংশ, দিনাজপুরে ৯২.৯৯ শতাংশ, কুমিল্লায় ৮৯.৬৮ শতাংশ, রাজশাহীতে ৯৭.৬৮ শতাংশ শিক্ষার্থী পাশ করে।

পিইসি’র ফল

সর্বোচ্চ পাসের হার বিবেচনায় ২০১৬ সালের পিইসিই পরিক্ষায় ৭ বিভাগে প্রাথমিক সমাপনীতে বরিশাল এবং ইবতেদায়ীতে রাজশাহী বোর্ড শীর্ষে রয়েছে। জানালেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান।

মন্ত্রী বলেন, এবারের প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীতে ৯৯.০৯ ভাগ শিক্ষার্থী পাস করেছে বরিশাল বিভাগে। এছাড়া মাদরাসা বোর্ডের এবতেদায়ীতে ৯৮.০৩ ভাগ পাস করে শীর্ষে রয়েছে রাজশাহী বিভাগ।

২০১৬ সালের প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় ৯৮ দশমিক ৫১ শতাংশ ও ইবতেদায়ীতে ৯৫ দশমিক ৮৫ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে। এর মধ্যে প্রাথমিকে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২ লাখ ৮১ হাজার ৮শ’ ৯৮ ও ইবতেদায়ীতে ৫ হাজার ৯শ’ ৪৮ জন।

গেলো ২০ নভেম্বর থেকে শুরু হয় প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী পরীক্ষা। সারাদেশে ৭ হাজার ১৯৪টি কেন্দ্রে এবার ৩২ লাখ ৩০ হাজার ২৮৮ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়।

অন্যদিকে, গেলো ১ নভেম্বর থেকে শুরু হয় জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা। জেএসসিতে এবার ২০ লাখ ৩৮ হাজার ৩০৩ জন এবং জেডিসিতে ৩ লাখ ৭৪ হাজার ৪৭২ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে।

মোবাইলে যেভাবে জানতে পারবেন পরীক্ষার ফল-
JSC/JDC লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের প্রথম তিন অক্ষর (যেমন- ঢাকার ক্ষেত্রে DHA) লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে পাসের সন লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে। ফিরতি এসএমএসে জানা যাবে কাঙ্ক্ষিত ফল। যেমন- JSC DHA 223657 2016 এবং Send করতে হবে 16222 নম্বরে।

ইন্টারনেটের মাধ্যমে যেভাবে জানতে পারবেন-
www.educationboardresults.gov.bd -এ ঠিকানায় গিয়ে নির্দিষ্ট তথ্য দিয়ে ফল জানা যাবে। এছাড়া শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের www.moedu.gov.bd ওয়েবসাইট থেকেও ফল জানা যাবে।

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীর ফল যেভাবে জানতে পারবেন-
DPE/EBT স্পেস দিয়ে প্রার্থীর নিজ উপজেলা/থানার কোড নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে পাসের সন লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে। ফিরতি এসএমএসে ফল জানা যাবে।

এছাড়া প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের ওয়েবসাইট www.dpe.gov.bd এবং www.dpe.gov.bd ও dperesult.teletalk.com.bd ওয়েবসাইট থেকেও ফলাফল জানা যাবে।

LEAVE A REPLY