কানেকটিভিটি ও আইসিটি অবকাঠামো
উপজেলা থেকে দুই হাজার ছয় শত ইউনিয়নে অপটিক্যাল ফাইবারের সংযোগ ও প্রতিটি ইউনিয়নে একটি করে POP (Point of presence) স্থাপন, লিজড লাইনের মাধ্যমে ১ হাজার পুলিশ অফিস সংযোগসহ পৃথক VPN স্থাপন করার লক্ষ্যে Development of National ICT Infra-Network for Bangladesh Government-Phase-III (Info-Sarker-3) প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।
ডেটা সেন্টার সম্প্রসারণের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক মান বজায় রেখে সেবা প্রদানের লক্ষ্যে IT Audit সম্পন্ন করা হয়েছে। চূড়ান্ত অডিট প্রতিবেদন অনুযায়ী Data Centreকে সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার লক্ষ্যে অবকাঠামো উন্নয়ন, হার্ডওয়্যার ও সফটওয়্যার সংগ্রহ করা হয়েছে। Next Generation Firewall & Intrusion Prevention System স্থাপন করে ডেটা সুরক্ষার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদফতর দেশের প্রান্তিক পর্যায় পর্যন্ত কানেকটিভিটি পৌঁছে দেয়াসহ, প্রযাজ্য ক্ষেত্রে আইসিটি প্লাটফর্ম স্থাপনের লক্ষ্যে Establishing Digital Connectivity শীর্ষক প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। প্রস্তাবিত প্রকল্পের মূল কার্যক্রমগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলোÑ (ক) সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ প্রায় দুই লাখ প্রান্তিক পর্যায়ের দফতর/প্রতিষ্ঠানে অপটিক্যাল ফাইবার অথবা বিশেষ ক্ষেত্রে সম্ভাব্য প্রযুক্তির মাধ্যমে নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ, (খ) ১৫ হাজার প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং কলেজে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব স্থাপন, (গ) জেলা প্রশাসকের কার্যালয় ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে কম্পিউটার ল্যাব স্থাপন, (ঘ) জাতীয় সংসদ এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ডিজিটালাইজেশন, (ঙ) ১২টি IT পার্কে ডিজিটাল লাইব্রেরি ও ৬৪টি শিল্পকলা একাডেমিতে মাল্টিমিডিয়া সেন্টার স্থাপন, (চ) সেবা/সাহায্যের জন্য একটি ইমার্জেন্সি সার্ভিস সেন্টার (৯৯৯) স্থাপন, (ছ) উদ্যোক্তা তৈরির অনুকূল ক্ষেত্র প্রস্তুতকরণ, ডিজিটাল আর্থিক লেনদেন কেন্দ্র ও ই-কমার্স বিস্তারের লক্ষ্যে সারা দেশে ব্যবসা প্রসার (Growth Center) কেন্দ্রগুলোয় ১০ হাজার Point of Presence (PoP) স্থাপন (কানেকটিভিটি সম্প্রসারণ), (জ) বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনে একটি রেগুলেটরি ল্যাব, সাইবার সিকিউরিটি বিষয়ে প্রশিক্ষণের লক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয়সহ সরকারি প্রতিষ্ঠানে সাইবার সিকিউরিটি ল্যাব এবং হার্ডওয়্যার শিল্পের বিকাশের লক্ষ্যে VLSI ল্যাব স্থাপনসহ সব সরকারি দফতরে ই-সার্ভিস বাস্তবায়ন ক্ষেত্র প্রস্তুতির লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় কম্পিউটার ও যন্ত্রাংশ সরবরাহ এবং ডিজিটাল কন্টেন্ট ডেলিভারি, তথ্য সংরক্ষণে যন্ত্রপাতি ও নেটওয়ার্ক স্থাপনের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।
সারা দেশে দুই হাজার কম্পিউটার ও ভাষা ল্যাব স্থাপন
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের স্মৃতিকে স্মরণীয় করে রাখতে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব নামে দেশের দুই হাজার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ল্যাব ও ৬৫টি ভাষা প্রশিক্ষণ ল্যাব স্থাপনের কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। চলতি (২০১৬-১৭) অর্থবছরে ৮০০টি শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব ও ১০০টি শেখ রাসেল ডিজিটাল ক্লাসরুম স্থাপনের কাজ চলমান রয়েছে। শিক্ষক প্রশিক্ষণের কার্যক্রমও চলমান রয়েছে।
ব্যাংকিং ইতিহাসে সবচেয়ে বড় সাইবার হামলা
বাংলাদেশের ব্যাংকিং ইতিহাসে এ পর্যন্ত সবচেয়ে বড় সাইবার হামলার ঘটনা ঘটেছে ২০১৬ সালে। সুইফট কোড ব্যবহার করে ৫ থেকে ১০ ফেব্রুয়ারির মধ্যে ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউইয়র্কে থাকা বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে ৮ কোটি ১০ লাখ মার্কিন ডলার সরিয়ে নেয় সাইবার অপরাধীরা।
সিলেটে ২০টি আদালতে ডিজিটাল কার্যক্রম
সিলেটে ২০টি আদালতে ডিজিটাল এভিডেন্স রেকর্ডিং চালুর মাধ্যমে আদালতের কার্যক্রম ডিজিটালাইজড করার প্রক্রিয়া শুরু হয় ২ মার্চ।
দেশে ডিরেক্ট টু হোম (ডিটিএইচ) সেবা
টিভি দেখতে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি নিয়ে ‘রিয়াল ভিউ’ নামে ডিরেক্ট টু হোম (ডিটিএইচ) সেবা চালু করে বেক্সিমকো কমিউনিকেশন্স লিমিটেড ১০ মার্চ। এ প্রযুক্তির মাধ্যমে অপারেটরের সংযোগ ছাড়াই সরাসরি স্যাটেলাইটের মাধ্যমে টেলিভিশন চ্যানেল দেখতে পারবেন দর্শকরা।
মোবাইল গেম ‘হিরোজ অব ৭১’ উন্মোচন
বাংলাদেশে মহান মুক্তিযুদ্ধের ওপর ভিত্তি করে তৈরি করা প্রথম সফল মোবাইল গেম ‘হিরোজ অব ৭১’ চালু করার পর ২৬ মার্চ গেমটির নতুন সিকুয়েল ‘হিরোজ অব ৭১ : রিট্যালিয়েশন’ উন্মোচন করা হয়।
বেসিসের প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচন
দেশের সফটওয়্যার ব্যবসায়ীদের প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসের (বেসিস) কার্যনির্বাহী পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে মুস্তাফা জব্বারের প্যানেল বিজয়ী হয়।
সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কের উদ্বোধন
২৭ জুলাই তথ্যপ্রযুক্তির ইতিহাসে ঘটে আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা। রাজধানীর কারওয়ান বাজারে জনতা টাওয়ারে দেশের প্রথম সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক ‘আইটি ইনকিউবেটর’ উদ্বোধন করেন সজীব ওয়াজেদ জয়।
জয়ের ‘আইসিটি ফর ডেভেলপমেন্ট অ্যাওয়ার্ড’ লাভ
১৯ সেপ্টেম্বর ‘আইসিটি ফর ডেভেলপমেন্ট অ্যাওয়ার্ড’ লাভ করেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। ওইদিন নিউইয়র্কে তার হাতে এ পুরস্কার তুলে দেন হলিউড অভিনেতা রবার্ট ডেভি। যুক্তরাষ্ট্রের কানেকটিকাট প্রদেশের নিউ হেভেন বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব বিজনেস সম্মিলিতভাবে এ পুরস্কার প্রদান করে।
দেশের বাজারে প্রথম স্থানীয় ব্র্যান্ড ওয়ালটন ল্যাপটপের যাত্রা শুরু
বাংলাদেশের স্থানীয় ব্র্যান্ড ওয়ালটন প্রথমবারের মতো বেসরকারি উদ্যোগে ল্যাপটপ বাজারজাত শুরু করে ২২ সেপ্টেম্বর। ইনটেল, মাইক্রোসফট এবং বাংলাদেশের বিজয় বাংলার সহযোগিতায় ওয়ালটন ল্যাপটপ বাজারজাত করছে।
স্মার্টকার্ডের উদ্বোধন
২ অক্টোবর অরেকটি নতুন ইতিহাসের শুরু হয়। রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে স্মার্টকার্ড বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ কার্ড ব্যবহারের মাধ্যমে ব্যাংকিং, টিআইএন, ড্রাইভিং লাইসেন্স ও পাসপোর্টসহ ২৫ ধরনের সেবা পাওয়া যাবে। জাতীয় পরিচয়পত্র সংক্রান্ত যে কোনো তথ্য জানাতে একটি হেল্প ডেস্ক খুলেছে এনআইডি উইং। যে কোনো ফোন থেকে ১০৫ নম্বরে কল করলে নাগরিকদের তথ্য জানাবেন জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন বিভাগের কর্মকর্তারা।
তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিযোগিতা
শিক্ষার্থীদের জন্য জাতীয় পর্যায়ে বছরজুড়েই ছিল তথ্যপ্রযুক্তিভিত্তিক নানা প্রতিযোগিতা। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে কম্পিউটার প্রোগ্রামিংয়ের মর্যাদাপূর্ণ আয়োজন এসিএম আন্তর্জাতিক কলেজিয়েট প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা-২০১৭’র ঢাকা পর্ব, ইএটিএল-প্রথম আলো অ্যাপস প্রতিযোগিতা, কানেকটিং স্টার্টআপ বাংলাদেশ, জাতীয় হ্যাকাথন, জাতীয় হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা ও জাতীয় কলেজিয়েট প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা।
বিভিন্ন আইসিটি মেলা
প্রতি বছরের মতো এ বছরও বেশ ঘটা করে রাজধানীতে আয়োজন করা হয় বিভিন্ন মেলা। আইসিটি এক্সপো-২০১৬ ও ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০১৬, বিপিও সামিট-২০১৬, ল্যাপটপ মেলা, ডিজিটাল সিটিআইটি মেলা, বিসিএস কম্পিউটার মেলা। এর মধ্যে আইসিটি এক্সপো-২০১৬ ও ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০১৬ বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। এসব মেলায় দেশীয় প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি বিদেশি প্রতিষ্ঠান যেমন ছিল, তেমনি বাইরের দেশের প্রযুক্তিসংশ্লিষ্ট ব্যক্তি, নীতিনির্ধারকদেরও উপস্থিতি ছিল।
রাজধানীতে অ্যাপভিত্তিক ট্যাক্সিসেবা ‘উবার’
বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাপভিত্তিক ট্যাক্সিসেবা উবার চালু হওয়ার দুই দিন পরই তাদের সেবাকে অবৈধ ঘোষণা করে বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ)। ২৫ নভেম্বর সংস্থাটি এ সংক্রান্ত একটি বিজ্ঞপ্তি গণমাধ্যমে প্রকাশ করে। বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, ‘ট্যাক্সিক্যাব সার্ভিস গাইডলাইন-২০১০’ অনুযায়ী সেবাটি অবৈধ। তবে এটি অব্যাহত রয়েছে।

LEAVE A REPLY