যুক্তরাষ্ট্রের ওরেগন অঙ্গরাজ্যের সালেম শহরে ঘরের দেয়াল ভেঙে গাড়ি ঘরে প্রবেশ করে বাংলাদেশি নারীকে চাপা দেয়। ফলে ঘুমন্ত অবস্থায় গাড়ি চাপায় এক বাংলাদেশি নারীর মৃত্যু ঘটে। স্থানীয় সময় সোমবার রাতে সালেম এলাকায় ভলকানো স্ট্রিটে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত বাংলাদেশি নারীর নাম শ্রাবন্তি হক বিপাশা। তিনি দুই সন্তানের মা ছিলেন।এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা বাংলা প্রেস।
জানা যায়, ৫৪ বছর বয়সের গাড়ি চালক অ্যালান জ্যাকব গাড়ি চালানো অবস্থায় হার্ট অ্যাটাকের শিকার হন। এতে তার গাড়িটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশের বাসার দেয়াল ভেঙে ঘরের ভেতর প্রবেশ করে। ভলকানো স্ট্রিটের শেষ মাথায় ইংরেজি এল অক্ষরের একটি মোড় রয়েছে। যেখান থেকে ডান দিকে গেছে সাসেক্স অ্যাভিনিউয়ের রাস্তা। এ মোড়ে এসে চালক জ্যাকব গাড়ি ঘুরাতে ব্যর্থ হন। গাড়ি সোজা চলতে থাকে। গাড়িটি নিম্নমুখী হয়ে গতিলাভ করে বাড়ির দেয়াল ভেঙে ঘরে ঢুকে যায়। স্টেটসম্যান জার্নালের খবরে বলা হয়েছে, দুর্ঘটনার সময় বিপাশার স্বামী ও সন্তানরা টিভি দেখছিলেন। তারা দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছেন এবং সুস্থ আছেন। দুর্ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে জরুরি সেবায় ফোন করা হয়। চালক জ্যাকব ঘটনাস্থলেই উপস্থিত ছিলেন। তিনি কর্তৃপক্ষকে সহযোগিতা করেন। বাংলাদেশ সময় বুধবার পর্যন্ত এ ঘটনায় কাউকে গ্রেফতার করেনি সালেম পুলিশ। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে।
বিপাশার কাজিন অঞ্জন বলেন, ‘আমরা শুধু জানি আফ্রিকান-আমেরিকান গাড়ির চালক বাড়ির দেয়াল ভেঙে প্রবেশের আগে হ্যার্ট অ্যাটাকের শিকার হয়েছিলেন। আমরা পুলিশের রিপোর্টের অপেক্ষায় আছি।’ অঞ্জন জানান, বিপাশা ১২ বছর আগে বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাষ্ট্রে যান। তিনি যুক্তরাষ্ট্রে স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থী ছিলেন। বিপাশার মরদেহের অবস্থা অনুসারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে তাকে পরিবারের ইচ্ছানুযায়ী বাংলাদেশে সমাহিত করা হবে কিনা। তিনি বলেন, এ সিদ্ধান্ত দুই দিন পর নেওয়া হবে। বাংলাদেশে তার মরদেহ নিতে অন্তত দশ দিন লাগতে পারে। গাড়ির চালকের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া বিপাশার স্বামীর ওপর নির্ভর করছে বলেও জানান অঞ্জন।

LEAVE A REPLY